HTTP || HTTPs || SSL || TLS

HTTP stands for hypertext transfer protocol. এটি সম্ভবত বর্তমানে বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত প্রটোকল যা ইন্টারনেটে ওয়েব পেইজগুলি দেখার জন্য ব্যবহৃত হয়। আপনি আপনার ব্রাউজারের সার্চ বক্সে যখন একটি ওয়েবসাইট টাইপ করে থাকেন যেমন গুগল.কম, আপনি লক্ষ্য করবেন যে ওয়েব URL-এর শুরুতে HTTP স্বয়ংক্রিয়ভাবে যুক্ত হয়ে গেছে এবং এটি ইঙ্গিত দেয় যে আপনি এখন এই ওয়েব পেইজটি রিট্রিভ করতে HTTP ব্যবহার করছেন।

স্ট্যান্ডার্ড HTTP-তে সমস্ত তথ্য ক্লিয়ার টেক্সট-এ পাঠানো হয়। ক্লিয়ার টেক্সট হল, আপনি একটি ওয়েবসাইটে আপনার নাম, ঠিকানা, পাসওয়ার্ড বা অন্য যেকোন তথ্য লিখছেন আর সে ওয়েব সাইটটি HTTP প্রটোকল ব্যবহার করছে তাহলে ওয়েবসাইটটিতে দেয়া আপনার সব তথ্যগুলো কোন রকম এনক্রিপ্টেড না হয়েই/করেই পাবলিক ইন্টারনেট হয়ে ওয়েবসার্ভারে পৌছে। HTTP ব্যাবহারের এটি একটি অসুবিধা বা দুর্বলতা বলা যেতে পারে কারন পাবলিক ইন্টারনেটে থাকা কোন হ্যাকার চাইলেই আপনার সব তথ্য খুব সহজেই পেতে পারে যদি ওয়েবসাইটতিতে HTTP ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

এখন যদি এমন হয় যে আপনি কেবল নিয়মিত ওয়েবসাইটগুলি ব্রাউজ করছেন এবং পাসওয়ার্ড বা ক্রেডিট কার্ডের মতো কোনও গুরুত্বপূর্ণ ডেটাও ব্যবহার করছেন না তাহলে HTTP ব্যবহার করতে পারেন।

তবে যদি ব্যক্তিগত সেনসিটিভ কোন ডেটা পাঠানো হয় যেমন নাম, ঠিকানা, ফোন নম্বর, পাসওয়ার্ড বা ক্রেডিট কার্ডের মত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তাহলে অবশ্যই HTTP ব্যবহার সিকিউরড না কারন আপনার গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্যই তখন আপনার পাশাপাশি ইন্টারনেটে থাকা হ্যাকার জেনে থাকবে।

এই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে HTTPs ডেভেলপড করা হয়। HTTPs (Secure Hypertext transfer protocol) এটি HTTP-ই শুধু সাথে সিকিউরিটি যুক্ত হয়েছে।

HTTP দ্বারা পুনরুদ্ধার করা ডেটা HTTPs এনক্রিপ্ট করে। এটি নিশ্চিত করে কম্পিউটার এবং সার্ভারের মধ্যে ইন্টারনেটে স্থানান্তরিত হচ্ছে এমন সমস্ত ডেটার সিকিউরিটি। এনক্রিপশন হল, মনে করুন আপনি লিখেছেন আপনার নাম রহিম, আর এটি যখন আপনার কম্পিউটার হয়ে সার্ভারের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে তখন #@59589343=[][;..;[#$$ এমন আনরিডেবল  হয়ে যাবে যেটাকে এনক্রিপশন বলে। পাবলিক ইন্টারনেটে থাকা কোন হ্যাকারের পক্ষে এটি ডিক্রিপ্ট করা প্রায় অসম্ভব হয়ে যায় তাই আপনার ডাটাও সেইফ থাকে অন্যের হাত থেকে।

যদি এমন কোনও ওয়েবসাইটে যান যেখানে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য যেমন পাসওয়ার্ড বা ক্রেডিট কার্ড নম্বর প্রবেশ করানোর প্রয়োজন হয় বা কোন ওয়েবসাইটের লগইনের কথায় ধরুন তাহলে সেই ওয়েবের URL-এ গেলে দেখতে পারবেন HTTP এর সাথে S যুক্ত আছে আর তখনি বুঝে নিবেন যে আপনি একটি সিকিউরড ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছেন যেখানে আপনার গুরুত্বপূর্ন ডেটাগুলো সুরক্ষিতভাবে সার্ভারে পাস হবে। অনেক ওয়েব ব্রাউজার-ই এখন HTTPs এর পরিবর্তে একটি প্যাডলক আইকন ব্যবহার করে থাকে যা দ্বারা বোঝায় যে ওয়েব সাইটটি সিকিউরড।

HTTPs তথ্য সুরক্ষা দেয় দুটি প্রোটোকল ব্যবহার করে যার মধ্যে একটি হচ্ছে SSL. SSL (secure sockets layer) একটি প্রটোকল যেটি ইন্টারনেটের সিকিউরিটি নিশ্চিত করে। ডেটা সিকিউর করবার জন্য এটি পাবলিক কি এনক্রিপশন ব্যবহার করে থাকে। যখন কোন কম্পিউটার একটি ওয়েবসাইটে কানেক্ট হয় যেটি SSL ব্যবহার করে, কম্পিউটারের ওয়েব ব্রাউজারটি ওয়েবসাইটটিকে নিজের পরিচয় দিতে বলে। তারপরে ওয়েবসার্ভারটি কম্পিউটারকে তার SSL সার্টিফিকেটের একটি কপি প্রেরণ করে থাকে। SSL সার্টিফিকেট হচ্ছে একটি ছোট ডিজিটাল সার্টিফিকেট যা কোনও ওয়েবসাইটের আইডেনটিটি প্রমাণ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। মূলত এটি আপনার কম্পিউটারকে জানাতে ব্যবহার করা হয় যে আপনি যে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করছেন তা বিশ্বাসযোগ্য। এরপরে কম্পিউটার ব্রাউজার চেক করে দেখে যে সার্টিফিকেটটা বিশ্বাসযোগ্য কিনা। যদি বিশ্বাসযোগ্য হয় তবে ওয়েব সার্ভারে একটি ম্যাসেজ সেন্ড করে আর তারপরে ওয়েব সার্ভারও একটি রেস্পন্ড করে থাকে স্বীকৃতি দিয়ে। এতসব পদক্ষেপের পরে সম্পূর্ণ এনক্রিপ্ট করা ডেটা আদান প্রদান করা যায় বা করা হয় আপনার কম্পিউটার এবং ওয়েব সার্ভারের মধ্যে।

আর একটি প্রটোকল যেটি HTTP-কে সিকিউর করে থাকে সেটি হল TLS. TLS or Transport Layer Security সর্বশেষ ইন্ডাস্ট্রি স্ট্যান্ডার্ড ক্রিপ্টোগ্রাফিক প্রোটোকল। এটি SSL এর সফল উত্তরসূরি এবং একই বৈশিষ্টের উপর ভিত্তি করে তৈরি। SSL এর মতই এটিও আগে সার্ভার-ক্লায়েন্টের সঠিকতা যাচায় করবার পরে ডাটা এনক্রিপ্ট করে পাঠায়।

এটি উল্লেখ করাও গুরুত্বপূর্ণ যে প্রচুর ওয়েবসাইটগুলি এখন নির্বিশেষে তাদের ওয়েবসাইটে ডিফল্টভাবেই HTTPs ব্যবহার করছে গুরুত্বপূর্ণ ডেটা যদি নাও বিনিময় হয় সেক্ষেত্রেও। এখন যদি আপনি কোনও বড় ওয়েবসাইটে যান তবে আপনি সেখানে অবশ্যই HTTPS  লক্ষ্য করবেন স্ট্যান্ডার্ড HTTP এর পরিবর্তে। কারন যেসব ওয়েবসাইটে SSL ব্যবহার করা হয় না সেগুলোকে গুগল চিহ্নিত করে পেনালাইজড করে সেগুলোর র‍্যাঙ্কিং কমিয়ে দিয়ে।

HTTP || HTTPs || SSL || TLS
Scroll to top